Home / বাংলা টিপস্ / শীতকালীন সময়ে ত্বকের যত্ন নিতে রইলো ৭টি ঘরোয়া টিপস

শীতকালীন সময়ে ত্বকের যত্ন নিতে রইলো ৭টি ঘরোয়া টিপস

শীতে ত্বকের যত্ন একটু বেশিই প্রয়োজন হয়। কেননা এসময় ত্বক হয়ে উঠে শুষ্ক ও অনুজ্জ্বল। তাই শীতে ত্বকের বাড়তি যত্ন নেওয়া উচিত। শীতকালে ত্বকের যত্নে কিছু করণীয় নীচে তুলে ধরলাম। শীতকালে এই কাজগুলো করলে আপনার ত্বক থাকবে উজ্জ্বল ও মসৃণ।

জেনে নিন শীতে ত্বকের যত্ন নিতে ৭টি করণীয়
অন্যান্য সময়ের চেয়ে শীতে ত্বকের যত্ন একটু ভিন্ন হয়। এসময় ত্বকের প্রতি একটু বাড়তি খেয়াল রাখা হয়। আসুন জেনে নিই শীতে ত্বক ঠিক রাখতে কিছু করণীয়।

১) ময়েশ্চারাইজারের নিয়মিত ব্যবহার
শীতে ময়েশ্চারাইজার এর ব্যবহার অত্যাবশ্যক হয়ে পড়ে। তবে খেয়াল রাখতে হবে ময়েশ্চারাইজারে যেন তেলের পরিমাণ বেশি থাকে।

কেননা শীতের শুষ্ক ত্বক আর্দ্র রাখতে এমন ময়েশ্চারাইজার প্রয়োজন যেটায় তেলের পরিমাণ পর্যাপ্ত। এছাড়াও যে নাইট ক্রীম ব্যবহার করা হয় সেটাও একই ধরনের হতে হবে।

শীতে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখতে মুখে যেসকল ক্রীম মাখা হয় তাতে তেলের পরিমাণ যথেষ্ট পরিমাণে থাকা দরকার।

২) সানস্ক্রিনের ব্যবহার
অনেকেই মনে করেন শীতে সানস্ক্রিনের ব্যবহার জরুরি নয়। কথাটি ভুল। পক্ষান্তরে শীতেই সানস্ক্রিনের ব্যবহার অত্যন্ত প্রয়োজন। কেননা অন্যান্য ঋতুর মতো শীতকালেও সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি ত্বকের ক্ষতি করে।

তাই শীতের রৌদ্রে বেরোনোর অন্তত ৩০ মিনিট আগে মুখে সানস্ক্রিন মাখুন। এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় থাকবে।

৩) সকালে ঘুম থেকে উঠে
শীতের সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী ফেসওয়াস বা সাবান ব্যবহার করতে পারেন। সাবানটি অবশ্যই কোমল ময়েশ্চারাইজারযুক্ত হতে হবে।

এরপর গাজরের রস মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণপর ধুয়ে ফেলতে পারেন। এবং একদিন পর পর স্ক্রাব করলে শীতে ত্বকের সুস্থতা বজায় থাকবে।

৪) গোসলের আগে ও পরে

গোসলের আগে শরীরে তেল ব্যবহার করতে পারেন। এবং শীতকালে সাবান কম ব্যবহার করুন। অথবা এমন সাবান ব্যবহার করতে পারেন যেটাতে আর্দ্রতা রয়েছে। এছাড়াও গোসলের পরে অলিভ

অয়েল বা নারিকেল তেল হালকা গরম করে পুরো শরীরে মাখতে পারেন।

গোসলের পানিতে কয়েক ফোটা জোজোবা অথবা বাদাম তেল মেশাতে পারেন। এবং গোসল শেষে মুখে লোশন মাখতে পারেন। এতে শীতেও ত্বক থাকে আর্দ্র ও মসৃণ।

৫) রাতে ঘুমানোর আগে
রাতে ঘুমানোর আগে নিয়মিত মুখে আর্দ্রতাযুক্ত লোশন ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও শীতে ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে অলিভ অয়েল বা তরল প্যারাফিন ব্যবহার করতে পারেন।

কমবয়সীদের জন্য পেট্রোলিয়াম জেলি এবং প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য নাইট ক্রিম শীতে ত্বকের যত্ন নিতে উপকারি।

৬) ফেস প্যাক
শীতের ফেস প্যাক একটু ভিন্নধর্মী হতে হয়। কেননা এসময় ত্বকের দরকার বাড়তি যত্ন। দুধের সঙ্গে একটুকরো পাউরুটি এবং পাকা কলার কিছু অংশ মিশিয়ে পেস্ট করুন। এরপর তাতে চন্দনগুড়া মিশিয়ে মুখে মাখুন। ১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এভাবে নিয়মিত ব্যবহারে শীতকালেও ত্বক থাকবে উজ্জ্বল ও মোলায়েম।

৭) নিয়মিত গোসল
শীতে নিয়মিত গোসল করা অত্যন্ত উপকারি। কেননা এসময় ত্বকে বিভিন্ন চর্মরোগ দেখা দিতে পারে। নিয়মিত গোসল করলে এসকল চর্মরোগ এড়িয়ে চলা যায়। এছাড়া নিয়মিত গোসলে ত্বকও থাকে উজ্জ্বল। তাই শীতে ত্বকের যত্ন নিতে নিয়মিত গোসল করা জরুরি।

পরিসমাপ্তি
শীতে ত্বকের যত্ন নিতে উপরোক্ত পদ্ধতিগুলি মেনে চলতে পারেন। মুখের পাশাপাশি হাত ও পায়ের যত্নেও অবহেলা করা যাবে না। তাই শীতকালে ত্বকের যত্ন নিন, সুন্দর থাকুন।

Check Also

‘চকলেট মগ কেক’ তৈরি করুন মাত্র তিন মিনিটেই ।

কেক খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুব কমই আছেন। বিশেষ করে ছোট বাচ্চাদের কেক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.