Breaking News
Home / অন্যান্য / জেনে নিন অতিরক্ত পস্রা’ব হয় যে ৫টি কারনে ।

জেনে নিন অতিরক্ত পস্রা’ব হয় যে ৫টি কারনে ।

কিছুক্ষণ পরপরই প্রস্রা’বের বেগের কারণে অনেকেরই দু’র্ভোগ পোহাতে হয়। ঘরে থাকলে সম’স্যা নেই, তবে বাইরে বের হলেই যদি প্রস্রা’বের বেগ পায় সেক্ষেত্রে বিপত্তি ঘটে।দীর্ঘক্ষণ প্র’স্রাব চেপে থাকাও বেশ কষ্ট’কর আর স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষ’তি’কর। এ কারণে প্রস্রাবে ইন’ফেকশন ঘটতে পারে, এমনকি বি’কল হতে পারে কিডনিও।

তাই আপনার ক্ষেত্রেও যদি এমনটি ঘটে, তাহলে অবশ্যই সা’বধান হওয়া জরুরি। কারণ বেশ কিছু বিষয় আছে, যার ফলে বারবার প্র’স্রাবের বেগ পায়।এই সমস্যা দীর্ঘদিন চলতে থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতেই হবে। পাশাপাশি জী’বনযাত্রায় পরিবর্তন আনতে হবে।কিছু কিছু খাবার বা পানীয় আছে যা খাওয়ার বিষয়ে আরও সতর্ক থাকতে হবে। জেনে নিন কোন খাবারগুলো ঘন ঘন প্রস্রা’বের চাপ হওয়ার ৫ কারণ-

>> মূত্রাশ’য়ের পেশি দুর্বল হলে অতি’রিক্ত কফি খাওয়া এড়িয়ে চলুন। কারণ কফিতে ক্যাফেইন জাতীয় উপাদান থাকে। যা মূ’ত্রাশয়ের পেশির উপর চাপ দেয়।

>> যদি মূ’ত্রা’শয়ের পেশি দুর্বল হয়, তাহলে সোডাযুক্ত পানীয় পরিহার করুন। ঠান্ডা পানীয় বা লেমনেডে থাকা দ্রবীভূত কার্বন ডাই অক্সাইড মূত্রাশয়ে চাপ দেয়। ফলে প্রস্রাবের বেগ বাড়ে।

>> ম’দ্যপা’ন স্বস্থ্যের জন্য মোটেও ভালো নয়, তা সবারই জানা। তবুও যারা ম’দ্যপা’ন করেন তাদের ক্ষেত্রেও ঘন ঘন প্রস্রা’বের বেগ ঘটতে পারে।কারণ ম’দ জাতীয় পানীয় শরীর শুকিয়ে দেয়। ফলে শরীরে জমে থাকে পানি বের হয়ে যায়। ফলে প্রচুর মূ’ত্র তৈরি হয়।

>> মিষ্টিজাতীয় খাবার কিংবা কৃ’ত্রিম চিনিও প্রস্রাবের বেগ বাড়াতে পারে। গবেষণা বলছে, কৃত্রিম চিনি বা সুইটনারে এমন কিছু উপাদান থাকে যা মূত্রের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। ফলে মূত্রাশয়ের পেশিতে চাপ পড়ে।

>> অ’তিরিক্ত মসলা দেওয়া খাবার খেতে বরাবরই নিষেধ করে চিকিৎসকরা। এমন খাবার শুধু গ্যাস্ট্রিক কিংবা বদ’জমের কারণ নয় বরং মূ’ত্রের সমস্যাও বাড়িয়ে দেয়।>> অ’তিরিক্ত মসলা দেওয়া খাবার খেতে বরাবরই নিষেধ করে চিকিৎসকরা। এমন খাবার শুধু গ্যাস্ট্রিক কিংবা বদ’জমের কারণ নয় বরং মূ’ত্রের সমস্যাও বাড়িয়ে দেয়।

Check Also

এক সাথে ৫ জোরা জমজ সন্তান জন্ম দিলো সৌদি নারী।

দুই জন নয় তিন জন নয় একসাথে একেবারে ৫ জোড়া যমজ সন্তান! গেলো সপ্তাহে বিরল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *