Breaking News
Home / অন্যান্য / চমক আছে অপেক্ষা করুন: আইভী।

চমক আছে অপেক্ষা করুন: আইভী।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন নিয়ে এ মুহূর্তে দেশজুড়ে আলোচনা চলছে। আগামী ১৬ জানুয়ারি সিটি করপোরেশনটিতে নির্বাচনের ভোটগ্রহণের কথা রয়েছে। আওয়ামীলীগ মনোনীত ডা. সেলিনা হায়াৎ

আইভী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পরিচয় দেয়া এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার দুজনেই জয়ের ব্যাপারে বেশ আশাবাদী। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, কে কি বললো তা আমার ভাবার বিষয় নয়। অপেক্ষা করুন, চমক আছে। এর বেশি কিছু বলতে চাই না।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সংবাদ সম্মেলন ডেকে নৌকা প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় নামার ঘোষণা দেওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সন্ধ্যায় এসব কথা বলেছেন আইভী। বিকালে বন্দরের

সোনাকান্দা হাটে নির্বাচনি প্রচারণার সময় ডা. আইভী বলেন, কে আমাকে সমর্থন দিলো কিংবা দিলো না, এ নিয়ে জনগণ কিংবা ভোটারদের মাথাব্যথা নেই। আমার নির্বাচনি এলাকার ভোটাররা সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছেন কাকে

ভোট দেবেন। ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, আমি কখনও বলিনি শামীম ওসমানের সমর্থন প্রয়োজন নেই। দল আমাকে নৌকার মনোনয়ন দিয়েছে, যারা নৌকা করে, আওয়ামী লীগের সমর্থন করে তারা এখানে ঐক্যবদ্ধ।

তিনি বলেন, ভোটের মাঠে লড়ছি আমি। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার। কিন্তু শুরু থেকে দেখছি, গণমাধ্যমকর্মীরা বারবার ভোটের মাঠে শামীম ওসমানকে টেনে আনছেন। সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেছেন,

আমি উত্তর দিয়েছি। আমি তাকে নিয়ে কোনও বাজে কথা বলিনি। শামীম ওসমানের সঙ্গে আপনার দ্বন্দ্ব কোথায় সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আইভী বলেন, কোনও দ্বন্দ্ব নেই। আছে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা। তবে নারায়ণগঞ্জে স্বস্তি ও শঙ্কার ব্যাপার আছে। খেলা হবে, সেই খেলা বন্ধ হওয়া উচিত। কাবাডি কিংবা হাডুডু খেলার দরকার নেই। নারায়ণগঞ্জের মানুষ যেভাবে খেলতে চায় সেভাবে খেলবো। মানুষ যে খেলার মাঠে, আমিও সেই মাঠে আছি।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নিজেকে নিয়ে আলোচনার কারণ জানতে চেয়ে আলোচিত সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, ‘এখন আমার অবস্থা গরিবের বউ, সবার ভাবির মতো। ও বলে আমি তার, সে বলে আমি তার।’ সোমবার দুপুরে সাম্প্রতিক নানা ইস্যু নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন তিনি। শামীম ওসমান বলেন, ‘নির্বাচন এলেই আমাকে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। নির্বাচন এলে শামীম ওসমানই কেন বারবার ‘সাবজেক্ট’ হন?

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এই সংসদ সদস্য বলেন, কোনো দল-মতের কারণে আমি রাজনীতিতে আসিনি। রাজনীতি করতে এসেছি জাতির পিতার হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে। রাজনীতি করতে এসেছি বঙ্গবন্ধুকে ভালোবেসে। আমি নৌকার বিরুদ্ধে না, নৌকা প্রতীক আমাদের রক্ত দিয়ে কেনা। আজ থেকে নৌকার হয়ে মাঠে নামলাম। নারায়ণগঞ্জের এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ছাত্রলীগ, মহিলা লীগ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। তারা আমার কাছে এসেছে, আমি তাদের আপ্যায়ন করেছি। টু বি অনেস্ট, আমি তখন নৌকার জন্য কাজ করিনি। আজ থেকে নৌকার পক্ষে নামলাম।

আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে কাজ না করায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টির দিকে ইঙ্গিত করে শামীম ওসমান বলেন, সামনে যে দিন আসছে, কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে। ছাত্রলীগের মনে কষ্ট দিয়েন না। দুঃসময়ে তারাই এগিয়ে এসেছিল। নির্বাচন ধমক দিয়ে হয় না। একে-অপরকে দোষারোপ করে নির্বাচন হয় না। সব রাগ অভিমান ছেড়ে দিয়ে কাজ করতে হবে। সবার ঘরে ঘরে যেতে হবে। এই ঘাঁটি নৌকার, এ মাটি আওয়ামী লীগের। জয় আমাদের হবেই।

নারায়ণগঞ্জে নৌকাকে ডুবিয়ে দেওয়া হবে বলে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার যে মন্তব্য করেছিলেন সংবাদ সম্মেলনে তার জবাব দেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আলোচিত এই সংসদ সদস্য। তৈমূরকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘আপনি নিজের প্রচারণা ঠিকমতো করেন। আমাদের কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু আপনি বলেছেন- নৌকা ডুবিয়ে দেবেন। নারায়ণগঞ্জ বিএনপি-জামায়াতের ঘাঁটি না। এখানকার মাটি ও মানুষ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার দলের পক্ষে। এখানে নৌকা ডোবানোর মতো এত শক্তি কারও আছে বলে আমার মনে হয় না।’

Check Also

এক সাথে ৫ জোরা জমজ সন্তান জন্ম দিলো সৌদি নারী।

দুই জন নয় তিন জন নয় একসাথে একেবারে ৫ জোড়া যমজ সন্তান! গেলো সপ্তাহে বিরল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *