Home / অন্যান্য / নবাব সিরাজোদ্দৈৗলার বংশধর দাবি, সত্যতা যাচাইয়ে সরকারি কর্মকর্তা।

নবাব সিরাজোদ্দৈৗলার বংশধর দাবি, সত্যতা যাচাইয়ে সরকারি কর্মকর্তা।

নবাব সিরাজউদ্দৌলা বা মির্জা মুহম্মদ সিরাজ-উদ-দৌলা (১৭৩২–১৭৫৭) ছিলেন বাংলা-বিহার-ওড়িশার শেষ স্বাধীন নবাব। সিরাজউদ্দৌলা তাঁর নানা নবাব আলীবর্দী খানের কাছ থেকে ২৩ বছর বয়সে ১৭৫৬ সালে বাংলার নবাবের ক্ষমতা অর্জন করেন। তাঁর সেনাপতি মীরজাফর, রায়দুর্লভ, বিশ্বাসঘাতকতার কারণে ২৩ জুন ১৭৫৭ সালে পলাশীর যুদ্ধে পরাজিত হন।

নবাব কে ঘিরে রচিত আছে অনেক ইতিহাস আর অনেক কল্প কাহিনী ,মীর জাফর আর নবাব সিরাজোদ্দৌলার ইতিহাস জানেনা এমন মানুষ খুবি কম পাওয়া যাবে কারন বাংলার শেষ নবাব ছিলেন নবাব সিরাজোদ্দৌলা ।

তবে নবাবের পর নবাবের আর কোনো বংশ ধর বা আত্মীয় স্বজন বেচে আছে কিনা বা তারা কোথায় আছে তা কেউ জানেনা জানেনা মীর জাফর এর বংশ ধর রাও কোথায় তাই সম্প্রতি এক লোক দাবি করছেন তিনি নাকি নবাব সিরাজোদ্দৌলার বংশ ধর আর তারা কাছে সব প্রমানও নাকি আছে। তাই এই কাহিনীর সত্যতা প্রমান করাতে স্বয়ং সরকারি কর্মকর্তা হাজির হলেন ।

তিনি হলেন রাউজানের মাহদী উদ-দৌলা নিজেকে নবাব সিরাজউদ্দৌলার বংশধর দাবি করার পাশাপাশি তার কাছে থাকা তরবারি, পোশাক ও জুতো নবাবের ব্যবহৃত বলে দাবি করার পর, এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনার ক্ষেত্র তৈরি হয়।

অনেকেই তার কথাকে বিশ্বাসযোগ্য মনে করেন আবার অনেকেই তা উড়িয়ে দেন। তাকে নিয়ে ভিডিও তৈরির পর বহু মানুষ অনুরোধ জানান বিষয়টির সত্যতা যাচাইয়ের।

তাই যারা বিস্তারিত জা’নতে চান বা দে’খতে চান তারা এই লিংক এ ক্লিক করে ভিডিওটি দে’খে নিন।

Check Also

শেকল ছেরে হাতির তান্ডব ফসলি জমির ক্ষয়ক্ষতি।

লালমনিরহাটের সদর উপজেলায় শেকল ছিঁড়ে তাণ্ডব চালিয়েছে মাহুতের একটি হাতি। রোববার দুপুরে রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের তিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.