Home / বাংলা টিপস্ / যদি বেশি মিষ্টি খেতে ইচ্ছা করে তাহলে যা করতে হবে ।

যদি বেশি মিষ্টি খেতে ইচ্ছা করে তাহলে যা করতে হবে ।

চিকিৎসকরা বলছেন সুগার বা চিনি স্বাস্থ্যের জন্য ভীষণ ক্ষতিকর। ওষুধ খেয়ে, এক্সারসাইজ করেও অনেক সময়ে এর হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায় না। বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য চিনি খাওয়া একদম নিষেধ।

তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে এসব রোগীদের আবার বেশি করে মিষ্টি খেতে ইচ্ছে করে। একে বলা হয় সুইট টুথ। এর হাত থেকে রেহাই পাওয়া খুবই জরুরি। এজন্য বেশ কিছু খাবারের সাহায্য নেওয়া চলতে পারে।
টিপস হেলথ-টিপস চিকিৎসা

গোলমরিচ সুইট টুথের ক্ষেত্রে এটি খুবই উপকারী। এর অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট গুণ এ ক্ষেত্রে বিশেষ উপকারী।

গোলমরিচের মতো ধনেও খুব কার্যকরী। শরীরে ইনসুলিন জোগান দেয় এরকম কোষকে উজ্জীবিত করে ধনে। শাক-সবজি, ডাল-তরকারিতে ধনেগুঁড়ো ব্যবহার করা যেতে পারে।

এলাচও সুইট টুথের ক্ষেত্রে কাজ দেয়। এই মশলাটি স্বাদে মিষ্টি। এটি সরাসরি মুখে রাখলে মিষ্টি খাওয়ার ইচ্ছে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

হলুদও খুব কার্যকরী সুইট টুথ ব্রেকার। এটি ইনফ্লেমেশন কমায়। এমনিতেও এর নানা উপকার। সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখার ক্ষেত্রেও পরোক্ষভাবে কাজ করে।

জায়ফল রান্নায় বিভিন্নভাবে ব্যবহার করা যায়। এটি চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ার ইচ্ছে কমিয়ে দেয়। ফলে জায়ফলযুক্ত রান্না সুইট টুথের ক্ষেত্রে উপকারী।

লবঙ্গ ও দারুচিনি ইনসুলিন সেনসিটিভিটি বাড়িয়ে দেয়। ইনসুলিন নিয়ন্ত্রণ করে।

Check Also

শীত কালে বাদাম খেলে খেলে যে সকল উপকার পাওয়া যাবে।

বাদাম শরীরের জন্য অনেক উপকারী। একই সঙ্গে অল্প ক্ষুধার বড় সমাধান হলো বাদাম। ক্ষুধা লাগলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *